প্রধান খবর

বৃহস্পতিবার | ২৭ জুলাই, ২০১৭ | ১২ শ্রাবণ, ১৪২৪ | ৩ জিলক্বদ, ১৪৩৮

প্রচ্ছদ » প্রধান খবর » নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠাই প্রধান কাজ:মির্জা ফখরুল

নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠাই প্রধান কাজ:মির্জা ফখরুল

নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠাই প্রধান কাজ:মির্জা ফখরুল

নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য আন্দোলনের সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিতে দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

“আমাদের সামনে একটাই কাজ, এই সরকারকে সরিয়ে নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠা করা।”

বুধবার বিকালে পান্থপথের সামারাই কনভেনশন সেন্টারে কলাবাগান, ধানমন্ডি ও নিউ মার্কেট থানা বিএনপির কর্মী সভায় বক্তব্যে এই আহ্বান জানান দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব।

সংসদ বহাল রেখে দলীয় সরকারের অধীনেই আগামী নির্বাচন হবে- প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সকালে আরেকটি আলোচনা সভায় ফখরুল বলেন, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের ‘ফাঁদে’ বিএনপি পা দেবে না।

ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে স্বেচ্ছাসেবক দলের ওই আলোচনা সভায় তিনি বলেন, “আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। “আমরা বলতে চাই, বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর অধীনে কোনো নির্বাচনে জনগণ ভোট দেবে না। আওয়ামী লীগের এই ফাঁদে বিএনপি পা দেবে না।”mirza-fakhrul-islam-alamgir

সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর পর দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে। তবে এতে পক্ষপাতহীন নির্বাচন হবে না দাবি করে নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়ে আসছে বিএনপি।দুই দলের বিপরীত অবস্থানের মধ্যে সমঝোতার জন্য সংলাপের কথা বেশ কিছুদিন আলোচনায় থাকলেও তা বাস্তবে দেখা যায়নি।নির্বাচন নিয়ে সরকারি দলের কথায়ও গড়মিল রয়েছে বলে দাবি করেন ফখরুল।

“একবার লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী প্রস্তাব করেছিলেন, নির্বাচনকালীন সময়ে বিরোধী দলের সদস্যদের নিয়ে একটি ক্ষুদ্র অন্তর্বতীকালীন সরকার গঠন করা হবে। এখন তা থেকে সরে গিয়ে তিনি বলছেন, তার অধীনে ভোট হবে। সংসদ বহাল থাকবে।”

“কিছুদিন আগেও প্রধানমন্ত্রী সংসদে বলেছিলেন, মেয়াদের পর ছোট একটি অন্তবর্তীকালীন সরকার হবে। তাতে বিরোধী দল চাইলে আসতে পারে। কিন্তু ৫ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পর ক্ষমতা হারানোর ভয়ে তিনি একেবারে ইউটার্ন নিয়ে বলেছেন, একচুল পরিমাণও নড়ব না। দলীয় সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে।”

সব গণতান্ত্রিক দেশে যেভাবে নির্বাচন হয়, বাংলাদেশেও সেভাবে নির্বাচন করার কথা বলে প্রধানমন্ত্রী জনগণকে ‘বিভ্রান্ত করছেন’ বলেও অভিযোগ করেন এই বিএনপি নেতা।

“বিশ্বের কোনো গণতান্ত্রিক দেশে কি বিরোধী দলের ওপর এত নির্যাতন চালানো হয়? বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের গুম করার ঘটনা ঘটে?”বর্তমান নির্বাচন কমিশনও সরকারের ‘আজ্ঞাবহ’ প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে বলে দাবি করেন ফখরুল।

নির্দলীয় সরকার চাওয়ার ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, “আমাদের ক্ষমতায় বসিয়ে দেয়ার জন্য নয়, জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতেই আমরা নির্দলীয় সরকার চাই। কিন্তু সরকার তা দিতে চায় না।“কারণ তারা জেনে গেছে, নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে তাদের অনেক প্রার্থীরই জামানত বাজেয়াপ্ত হবে।”

আওয়ামী লীগ ক্ষমতা ধরে রাখতে সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধন করেছে বলেও দাবি করেন বিএনপি নেতা।এই পরিস্থিতিতে আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারকে ‘সরিয়ে দেয়াই একমাত্র পথ বলে মন্তব্য করেন ফখরুল।

“নির্দলীয় সরকার ব্যবস্থা জনগণের কাছে একটি গ্রহণযোগ্য ছিলো। ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করতে সরকার সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে ওই স্বীকৃত ব্যবস্থাকে বাতিল করেছে।”

“এর মাধ্যমে তাদের একদলীয় মুখোশ স্পষ্ট হয়ে গেছে। এখন প্রধানমন্ত্রী বলছেন, তার অধীনেই নির্বাচন হবে, তার মন্ত্রিসভা থাকবে। কী মজার কথা! এটা কখনো হবে না।”

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না। আবশ্যিক *

*


− 6 = 1

আপনি চাইলে এই এইচটিএমএল ট্যাগগুলোও ব্যবহার করতে পারেন: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>