ফুটবল

মঙ্গলবার | ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ | ৪ আশ্বিন, ১৪২৪ | ২৭ জিলহজ্জ, ১৪৩৮

প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » আন্তর্জাতিক » ফুটবল » এখন বার্সার একমাত্র ভরসা নেইমার

এখন বার্সার একমাত্র ভরসা নেইমার

এখন বার্সার একমাত্র ভরসা নেইমার

মেসিবিহীন বার্সেলোনা অনেকটাই নির্ভর করছে ব্রাজিল তারকা নেইমারের উপর।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গত আসরে স্কটল্যান্ড থেকে হেরে এসেছিল বার্সেলোনা। ‘এইচ’ গ্রুপে সেল্টিকের মাঠে মঙ্গলবার রাতের ম্যাচটি তাই লা লিগা চ্যাম্পিয়নদের জন্য প্রতিশোধ নেয়ার সুযোগ।

প্রতিপক্ষ হিসেবে স্কটিশ চ্যাম্পিয়নরা খুব একটা বড় নাম হয়তো নয়, কিন্তু মেসির অনুপস্থিতি কিছুটা হলেও খর্ব করেছে বার্সেলোনার আক্রমণভাগকে। পেশির চোটে প্রায় তিন সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে পড়েছেন মেসি। আর্জেন্টিনার এই তারকার হ্যাটট্রিকের সুবাদেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আগের ম্যাচে আয়াক্স আমস্টারডামকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল বার্সা।

সোমবার সংবাদ সম্মেলনে মেসির অভাবটা তাই ভালোই অনুভব করলেন বার্সা মিডফিল্ডার সেস ফ্যাব্রেগাস।

“আমরা সবসময়ই তার মতো মেধাবী একজন ফুটবলারের অভাব বোধ করবো। সে যে কোনো সময়ে একটি ম্যাচ জিতাতে পারে।”সঙ্গে অবশ্য তিনি এটাও জানিয়ে দিলেন, সেরা ফুটবলারকে হারিয়ে মাথা নিচু করে বসে থাকলে হবে না।

“আমি মনে করি আমাদের সবার এই অভাব পূরণে এগিয়ে আসতে হবে। আমরা তাকে (মেসি) ছাড়াও ভালো ফুটবল খেলতে পারি।”neymar-b

আর এখানেই বার্সোলোনায় মেসির ছায়া থেকে বেরিয়ে এসে নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ পাচ্ছেন ব্রাজিল তারকা নেইমার। ৫ কোটি ৭০ লাখ ডলারে এ মৌসুমে সান্তোস থেকে কিনে আনা ২১ বছর বয়সী তারকা সম্পর্কে ফ্যাব্রেগাস বলেন, “সে ভীষণ মেধাবী একজন খেলোয়াড়, আমি মনে করি সেই হতে যাচ্ছে বার্সার আগামী তারকা।”

মেসিবিহীন বার্সার সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ফুটবলার হিসেবে নেইমারকেই চিহ্নিত করলেন সেল্টিকের কোচ নিল লেনন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “তার প্রতিভা আছে, আছে অসংখ্য গোল করার ক্ষমতা”

তবে এখনই মেসির সঙ্গে নেইমারের তুলনা করতে নারাজ সেল্টিক কোচ।চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচের আগে অনুশীলনে বার্সেলোনা ফুটবলাররা।

মেসি ছাড়াও মাঠের বাইরে আছেন তিন ডিফেন্ডার জর্দি আলবা, পুয়োল ও মাসচেরানো। এর পরও ম্যাচে বার্সেলোনাকেই পুরোপুরি ফেভারিট মানলেন লেনন।

স্কটল্যান্ড সফরের মোট পরিসংখ্যানটা কিন্তু বার্সার জন্য বেশ হতাশার। এ পর্যন্ত ছয়টি ম্যাচ খেলে দুই জয়ের বিপরীতে তিনটিতে হেরেছে তারা, ড্র হয়েছে অপরটি ম্যাচটি। গত চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সেলটিকের মাঠেই ২-১ গোলে হেরেছিল নউ ক্যাম্পের দলটি। তাই খাতা কলমের হিসেবে নিশ্চিত ফেবারিট হয়েও নির্ভার হতে পারছে বার্সেলোনা।

সেল্টিকের বিপক্ষে আবারো যাতে কোনো অঘটন না ঘটে, তাই এবার একটু বেশিই সতর্ক বার্সেলোনা। আর সোমবার আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে কোচ জেরার্দো মার্তিনো ম্যাচটাকে ঠিক ‘প্রতিশোধের’ বলতে চাইলেন না। কারণ তার মতে বার্সার ফুটবলাররা ‘সবসময়ই জিততে চায়’।

মেসির বিকল্প পাওয়া সোজা নয় উল্লেখ করলেও কোচ বলেন, “আমাদের ভালো ভালো ফুটবলার আছে তাই আমরা তার অনুপস্থিতিকে ছুতো হিসেবে দেখাতে পারি না।”

“জিততে হলে আমাদের নির্ভুল, দ্রুতগতির ও মাঠ জুড়ে খেলতে হবে। বেশিক্ষণ বল আয়ত্বে রাখার পাশাপাশি ভার্টিকাল খেলা খেলতে হবে।”

‘এইচ’ গ্রুপের অপর ম্যাচে মিলান খেলবে ইউরোপের এক সময়ের সাড়া জাগানো দল আয়াক্সের বিপক্ষে। বার্সার সমান চারবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে তারা। তবে দলটি শেষবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে সেই ১৯৯৫ সালে। তাছাড়া আয়াক্সের সুসময় যে আজ সুদুর অতীত তা বার্সার বিপক্ষে তাদের ধরাশায়ী হওয়ার চিত্রই বড় উদাহরণ।

বার্সার মতো নিজেদের প্রথম ম্যাচে ইন্টারও জিতেছিল। সেল্টিককে তারা হারিয়েছিল ২-০ গোলে।

‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে চেলসি খেলবে রোমানিয়ার স্টুয়া বুকুরেশ্টের বিপক্ষে। প্রথম রাউন্ডে সুইজারল্যান্ডের দল বাসেলের কাছে ২-১ গোলে অঘটনের শিকার হওয়া চেলসি এ ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে প্রত্যয়ী।

এই গ্রুপের অপর ম্যাচে বাসেলের প্রতিপক্ষ জার্মানির শালকে। প্রথম ম্যাচে বুকুরেশ্টকে ৩-০ গোলে হারিয়েছিল শালকে।

গ্রুপ ‘জি’তে লা লিগায় এখন পর্যন্ত অপরাজিত দল আতলেতিকো মাদ্রিদ খেলবে পর্তুগালের পোর্তোর বিপক্ষে। শনিবার রাতে রিয়াল মাদ্রিদকে ১-০ গোলে হারিয়ে নিজেদের শক্তির প্রমাণ রেখেছে স্পেনের দলটি।

অন্য ম্যাচে রাশিয়ার জেনিত সেন্ট পিটার্সবার্গ খেলবে অস্ট্রিয়া ভিনের বিপক্ষে।

জেনিত-অস্ট্রিয়া ভিনের ম্যাচটি ছাড়া সবগুলো ম্যাচই শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত পৌনে একটায়।

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না। আবশ্যিক *

*


− 2 = 7

আপনি চাইলে এই এইচটিএমএল ট্যাগগুলোও ব্যবহার করতে পারেন: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>