প্রধান খবর

শুক্রবার | ২০ অক্টোবর, ২০১৭ | ৫ কার্তিক, ১৪২৪ | ২৮ মহররম, ১৪৩৯

প্রচ্ছদ » প্রধান খবর » নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি থেকে এক পা-ও নড়ব না: খালেদা জিয়া

নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি থেকে এক পা-ও নড়ব না: খালেদা জিয়া

নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি থেকে এক পা-ও নড়ব না: খালেদা জিয়া

বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, কেউ থাকুক বা না থাকুক  আমি একলা হলেও নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি থেকে এক পা-ও নড়ব না। দেশবাসীকে সঙ্গে নিয়ে দাবি আদায় করে ছাড়ব।

রবিবার সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত পেশাজীবী জাতীয় কনভেনশনে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এ কথা বলেন।

বেগম জিয়া বর্তমান সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, দেশের মানুষ আজ ঐক্যবদ্ধ। তারা অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায়। কিন্তু আপনাদের পক্ষে অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব নয়। তাই নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের কোনো বিকল্প নেই।শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, যদি মনে করেন আপনিই বেশি জনপ্রিয়, তবে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিয়ে জনপ্রিয়তা যাচাই করুন।

খালেদা জিয়া বলেন, ২০০৭ সালে কেএম হাসানের অধীনে নির্বাচন হতে আপনারা দেননি। আমরাও আপনার অধীনে কোনো নির্বাচন হতে দেব না।তিনি বলেন, ক্ষমতা হারানো ভয়ে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছেন। এসব দিয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকা যাবে না। আপনাদের এ পাতানো নির্বাচনে অংশ নিয়ে নিজেদের ক্ষতি করব না।

এতে সভাপতিত্ব করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি রাষ্ট্রবিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. এমাজ উদ্দিন আহমেদ। কনভেনশন পরিচালনা করছেন পেশাজীবী পরিষদের সদস্য সচিব ডা. এজেড এম জাহিদ হোসেন।

কনভেনশনে বক্তৃতা করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যরিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, কলামিস্ট ফরহাদ মজহার, এলডিপি চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ, জামায়াতের নায়েবে আমির নজির আহমেদ, ড. মাহবুবউল্লাহ, এডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, অধ্যাপক আফম ইউসুফ হায়দার, অধ্যাপক সদরুল আমিন, ড. পিয়াস করিম, জাতীয় প্রেসক্লাব সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ, চলচ্চিত্র নির্মাতা চাষী নজরুল ইসলাম, এডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া, শিক্ষক নেতা অধ্যক্ষ সেলিম ভূঞা, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, সাংবাদিক শফিক রেহমান, অধ্যাপক মোস্তাহিদুর রহমান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত আছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান, ব্রি. জে (অব.) আসম হান্নান শাহ, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের ভুঁইয়া এমপি, সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের সভাপতি আফম সোলাইমান চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. মনিরুজ্জামান মিয়া, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রুহুল আমীন গাজী, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. মামুন আহম্মদ, অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়াসের্র (অ্যাব) সভাপতি আ ন হ আখতার হোসেন, ডক্টর এসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ড্যাব) সভাপতি ডা. আজিজুল হক, দৈনিক নয়া দিগন্ত সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন, দৈনিক দিনকাল সম্পাদক ড. রেজোয়ান সিদ্দিকী, জাস্ট নিউজ সম্পাদক মুশফিকুল ফজল আনসারী, ঢাকা বারের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট খোরশেদ মিয়া আলমসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা পেশাজীবীরা।

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন