প্রধান খবর

শনিবার | ২২ জুলাই, ২০১৭ | ৭ শ্রাবণ, ১৪২৪ | ২৭ শাওয়াল, ১৪৩৮

প্রচ্ছদ » প্রধান খবর » নির্বাচনের প্রার্থী বাছাই শুরু করেছে আওয়ামী লীগ

নির্বাচনের প্রার্থী বাছাই শুরু করেছে আওয়ামী লীগ

নির্বাচনের প্রার্থী বাছাই শুরু করেছে আওয়ামী লীগ

অন্তর্বর্তী সরকার গঠন করার প্রস্তুতির পাশাপাশি আওয়ামী লীগ ও তার শরীকেরা জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য  পৃথকভাবে দলীয় প্রার্থী বাছাই শুরু করেছে। এরই মধ্যে আওয়ামী লীগের ৩০০ আসনের সম্ভাব্য প্রার্থীদের প্রাথমিক তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। এতে বেশির ভাগ আসনেই বিকল্প হিসেবে একাধিক নাম রাখা হয়েছে। কয়েকটি শরিক দলও তাদের প্রার্থীর তালিকা অনেকটা প্রস্তুত করে ফেলেছে বলে দলগুলোর বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

একাধিক সূত্র জানায়, আসন্ন নির্বাচনে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি অংশগ্রহণ করার উপর নির্ভর করছে জোটের আসন ভাগাভাগির কাজ। এ কারণে শরিক দলগুলোকে আলাদাভাবে প্রার্থী বাছাই করতে বলা হয়েছে।

এদিকে নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে বিএনপির সঙ্গে সমঝোতা হচ্ছে না ধরে নিয়েই প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবিত ‘সর্বদলীয় অন্তর্বর্তী সরকার’ গঠনের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে সরকারি দলের একাধিক নেতা ও মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে। এতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই নির্বাচন-কালীন সরকারের প্রধান থাকবেন। এ ক্ষেত্রে মন্ত্রিসভা হবে বিএনপির নেতৃত্বাধীন বিরোধী দলের বাইরের দলগুলোর সমন্বয়ে। অন্তর্বর্তী এই মন্ত্রিসভার সদস্যসংখ্যা ১০-এর মধ্যে রাখার চিন্তা রয়েছে। আর বিএনপি সমঝোতায় এলে এই মন্ত্রিসভার সদস্যসংখ্যা সর্বোচ্চ ২০ জন পর্যন্ত করার চিন্তা আছে।

প্রধানমন্ত্রী  সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে কিছুটা আলোচনাও করেছেন এ বিষয়ে । বৈঠকসংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানিয়েছে,  প্রধানমন্ত্রী জানান, সর্বদলীয় অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে নির্বাচনের অনুষ্ঠিত হবে। বিএনপি নির্বাচনে না এলে অন্যান্য দলের সঙ্গে নির্বাচনকালীন সরকারব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা করা হবে। ইতিমধ্যে কয়েকটি দলের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। অন্যান্য দলের সঙ্গেও হবে।

এর মধ্যে আজ মঙ্গলবার সিপিবি-বাসদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকের কথা রয়েছে। ১৪-দলীয় জোটের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, বিএনপি নির্বাচন বর্জন করলে শরিক দলগুলো আলাদাভাবে নির্বাচন করবে। তখন শরিক দলের বড় নেতারা যাতে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় না পড়েন, সেটা বিবেচনায় রেখেই আওয়ামী লীগের প্রার্থী ঠিক করা হবে। আর বিএনপি নির্বাচনে এলে আওয়ামী লীগ জোটের শরিকদের সঙ্গে আসন ভাগাভাগি করে জোট-গতভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে।

আওয়ামী লীগ আগামী ১০ নভেম্বর থেকে দলীয় মনোনয়নপত্র বিক্রির সিদ্ধান্ত নিলেও শরিকদের মধ্যে অনেক দলেরই মনোনয়নপত্র বিক্রির রেওয়াজ নেই। ফলে তাঁরা দলীয় ফোরামে আলোচনা করেই প্রার্থী ঠিক করেন। এর মধ্যে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে পারে—এমন ৪০ জনের নামের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। ২৫ ও ২৬ অক্টোবর ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটি এই তালিকা চূড়ান্ত করে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক নূরুর রহমান সেলিম বলেন, এখন পর্যন্ত জোটগতভাবে এবং সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচন হবে বলে তাঁরা আশা করছেন। তাঁদের দল থেকে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ১০ জনের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এর বাইরে ১৪ দলের অন্য শরিকদের গত নির্বাচনেও জোটের মনোনয়ন দেওয়া হয়নি। সাম্যবাদী দলের দিলীপ বড়ুয়াকে টেকনোক্র্যাট মন্ত্রী করা হয়।

গত রোববার রাতে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে দলের সংসদীয় বোর্ডের বৈঠক হয়। এতে ১০ নভেম্বর আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র বিক্রি শুরু করার সিদ্ধান্ত হয় বলে বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা জানান। তবে এখনো এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি। পরিবেশ-পরিস্থিতি বুঝে মনোনয়নপত্র বিক্রির তারিখ এগিয়ে বা পিছিয়ে যেতে পারে বলেও সংসদীয় বোর্ডের একজন সদস্য জানান।

বৈঠক সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্রের দাম ১০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ২৫ হাজার টাকা করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না। আবশ্যিক *

*


9 − 7 =

আপনি চাইলে এই এইচটিএমএল ট্যাগগুলোও ব্যবহার করতে পারেন: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>