এই মুহূর্তে

শুক্রবার | ১৭ নভেম্বর, ২০১৭ | ৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ | ২৭ সফর, ১৪৩৯

প্রচ্ছদ » এই মুহূর্তে » নতুন জোট করে নির্বাচনে যাবো- এরশাদ

নতুন জোট করে নির্বাচনে যাবো- এরশাদ

নতুন জোট করে নির্বাচনে যাবো- এরশাদ

আজ চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফীর সঙ্গে ৫০ মিনিটের রুদ্ধদ্বার বৈঠক শেষে তিনি এ ঘোষণা দেন। এছাড়া, আগামীতে সরকার গঠন করতে পারলে হেফাজতে ইসলামের ১৩ দফা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়ার ঘোষণাও দেন তিনি।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ মহাজোটের বাইরে গিয়ে নতুন জোট করে নির্বাচনের ঘোষণা দিয়ে বলেছেন, “নির্বাচন অবশ্যই করব। তবে এই সরকারের বিরুদ্ধে নতুন জোট করে নির্বাচনে যাবো।”

বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে তৃতীয় জোট গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দুই জোটের বাইরে গিয়ে আগামী নির্বাচনে অংশ নিয়ে যাতে সফল হতে পারি সে জন্য হুজুরের সঙ্গে দেখা করে দোয়া নিতে এসেছি। উনি আমাকে দোয়া করেছেন।”

এ সময় হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবু নগরী সাংবাদিকদের বলেন, “এরশাদ সাহেব হুজুরের কাছ থেকে দোয়া নিতে এসেছেন। বৈঠকে নির্বাচন এবং দেশের বিরাজমান রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। হুজুর এরশাদ সাহেবকে বলেছেন, আল্লাহ এবং রাসূল (সা.) নির্দেশিত হেফাজতের ১৩ দফা দাবি বাস্তবায়নে যাদের অঙ্গীকার থাকবে তাদের প্রতি হুজুরের দোয়া এবং সমর্থন থাকবে। এ সময় তিনি (এরশাদ) হুজুরকে জানান, তিনি আলাদা জোট করে নির্বাচনে জয় হলে ১৩ দফা বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখবেন।”

এর আগে এরশাদ বলেছিলেন, মহাজোট ছেড়ে তিনি রাজনৈতিক জোট গড়ার ঘোষণা দেবেন। তার এ ঘোষণার পর বলা হচ্ছিল নির্বাচনে অংশ নেয়ার কৌশল এবং সরকারের পরামর্শে তিনি নতুন জোট গঠনের উদ্যোগ নিয়েছেন একতরফা নির্বাচনকে বৈধতা দেয়ার জন্য। যদিও গতকাল এক অনুষ্ঠানে এরশাদ বলেছেন, নির্বাচনে যাওয়া না যাওয়ার প্রশ্নে তিনি পথ খুঁজে পাচ্ছেন না। অন্যদিকে, হেফাজতে ইসলামের আমীর ইতোমধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন তার সংগঠন কোন রাজনৈতিক জোটে অংশ নেবে না। নির্বাচনে অংশ নেয়ার অভিপ্রায় নেই বলেও জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

আজকের বৈঠকে জাপা চেয়ারম্যানের সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার আমিনুল ইসলাম মাহমুদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন বাবলু এবং বেশ কয়েকজন শীর্ষনেতা। হেফাজতে ইসলামের পক্ষ থেকে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মঈনুদ্দীন রুহীসহ শীর্ষস্থানীয় কয়েকজন নেতা।

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন