বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

মঙ্গলবার | ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ১০ আশ্বিন, ১৪২৫ | ১৪ মহররম, ১৪৪০

প্রচ্ছদ » বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি » ২০১৪ সালকে পরিধেয় ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস প্রযুক্তি বর্ষ হিসেবে উদযাপন করবে গুগল, স্যামসাং ও সনি

২০১৪ সালকে পরিধেয় ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস প্রযুক্তি বর্ষ হিসেবে উদযাপন করবে গুগল, স্যামসাং ও সনি

২০১৪ সালকে পরিধেয় ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস প্রযুক্তি বর্ষ হিসেবে উদযাপন করবে গুগল, স্যামসাং ও সনি

এবারের ডাবলিনে অনুষ্ঠিত ‘মোবাইল শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীরা পরিধেয় ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসকে হার্ডওয়ারের পরবর্তী জেনারেশন হিসেবে বেছে নিয়েছে। বিশ্বের নামিদামি সব প্রতিষ্ঠান যেমন, গুগল, স্যামসাং ও সনিসহ বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান পরিধেয় ডিভাইস পণ্যের ওপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করছে।

যদিও বর্তমানে পরিধেয় ডিভাইসের প্রথম পছন্দের তালিকায় রয়েছে ঘড়ি। কিন্তু ২০১৩ থেকে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে ঘড়ি-ই একমাত্র পণ্য নয়, বরং পরিধেয় ডিভাইসের এই তালিকায় যুক্ত হয়েছে আরও বেশ কিছু পণ্য যেমন, বেল্ট, সেন্সর যুক্ত ম্যানিব্যাগ, গ্লাস প্রভৃতি।

স্যামসাং-এর উদ্ভাবিত গ্যালাক্সি গিয়ার আজ সকলের কাছেই পরিচিত। গত সেপ্টেম্বর মাসে বার্লিন আন্তর্জাতিক ইলেক্ট্রনিক পণ্য মেলায় প্রদর্শিত হওয়ার পর থেকে এ গ্যালাক্সি গিয়ার ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়, পণ্যটির বিক্রয়ও হয়েছে প্রচুর পরিমানে। সনি প্রতিষ্ঠানের পরবর্তী জেনারেশনের স্মার্ট ঘড়ি, সনি স্মার্ট ওয়ার্চ-২ প্রায় একই রকম ডিভাইসে তৈরী করা হয়েছে। কিন্তু সফ্টওয়্যারগত দিক থেকে এদের মধ্যে কিছুটা পার্থক্য রয়েছে।

পাশাপাশি অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলো স্মার্ট মোবাইল নিয়ে ব্যাপক গবেষণা করছে। এ সব প্রতিষ্ঠান ব্যবহার্য বা পরিধেয় সব প্রয়োজনীয় যন্ত্রকে ঘড়ির মতো ছোট আকারের ডিভাইসে তৈরী করতে চায়। ইতালির প্রতিষ্ঠান ‘এক্সেটেক’ এ্যান্ড্রয়েড সিস্টেমের ভিত্তিতে ওয়াইফাই, টাচ স্ক্রীন, জিপিএসসহ একাধিক এপ্লিকেশনে কাজে লাগাতে পারে, এমন কি সাহায্য চেয়ে বিপদ সংকেত মূলক কল করতে পারে এমন ঘড়িও উদ্ভাবন করছে।

ধারণা করা হচ্ছে মানুষের শরীরের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ নয় বা স্বাস্থ্য সহায়ক এমন পরিধেয় ডিভাইসের ব্যাপক বাজার চাহিদা থাকবে। যেমন হৃদস্পন্দন মনিটর, ক্রীড়া অনুসরণ, পাদক্ষেপগণনাযন্ত্র ইত্যাদি। এক্ষেত্রে নাইকি’র ফুয়েলব্যান্ড ক্রীড়া বেল্ট এবং ফিটবিট ক্রীড়া অনুসরণ যন্ত্র বর্তমানে খুব বিখ্যাত। বলা হচ্ছে ২০১৪ সালে এই সব পণ্য আরও ব্যপক বাজার চাহিদা তৈরী করবে।

আবার কিছু কিছু প্রতিষ্ঠান গ্রাহকের চোখ নিয়ে ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েছে। এক্ষেত্রে গুগল গ্লাস সবচেয়ে বেশি এগিয়ে আছে। যদিও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও গ্লাসের প্রতি ব্যাপক আগ্রহ দেখাচ্ছে। যেমন স্মার্ট গ্লাস প্রস্তুতকারী রিকন ইন্সট্রুমেন্টস্, এই কোম্পানিটি সম্প্রতি রিকন জেট নামে একটি সানগ্লাস তৈরি করেছে। যা ক্রীড়া অনুরাগীদের জন্য বিশেষ সুবিধা প্রদান করে।

পরিধেয় ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসযুক্ত পণ্যের পরিমাণ দিন দিন বেড়ে যাওয়া সত্ত্বেও সেগুলোর উন্নয়নে সফ্টওয়ারের অবদানই সবচেয়ে বেশি। স্মার্ট মোবাইল সেন্সরের মাধ্যমে পরিসংখ্যান বা ডাটা সংগ্রহে ভূমিকা পালন করবে। ডাটা সংগ্রহসহ পরিসংখ্যান তুলে ধরাই হবে এই পরিধেয় পণ্যের সাফল্যের প্রধান গুণ। তাছাড়া, ভবিষ্যত স্ক্রীণ, স্মার্ট মোবাইল বা পিসিতে পরিসংখ্যান দেখানো হবে পরিধেয় ডিভাইসের একটি গুরুত্বপূর্ণ অর্জন।

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন