Azizul Bashar
শীর্ষ খবর

শুক্রবার | ১৭ আগস্ট, ২০১৮ | ২ ভাদ্র, ১৪২৫ | ৫ জিলহজ্জ, ১৪৩৯

প্রচ্ছদ » শীর্ষ খবর » সৎ মায়ের অত্যাচারে ক্ষত-বিক্ষত প্রতিবন্ধী শিশু

সৎ মায়ের অত্যাচারে ক্ষত-বিক্ষত প্রতিবন্ধী শিশু

সৎ মায়ের অত্যাচারে ক্ষত-বিক্ষত প্রতিবন্ধী শিশু

ফেনীতে সৎ মায়ের নির্মম অত্যাচারের শিকার হয়েছে ১০ বছরের এক প্রতিবন্ধী শিশু।এই নির্মম ঘটনাটি ঘটে আজ রাত ৯ টায় ফেনী শহরের পশ্চিম ডাক্তার পাড়ায়।রেদওয়ান ইসলাম নামের শিশুটি বর্তমানে পুলিশের তত্ত্বাবধানে রয়েছে। এ ঘটনায় ফেনী মডেল থানা পুলিশ সৎ মা ঝুমুরকে আটক করেছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানায়, পরশুরাম পৌরসভার সলিয়া গ্রামের নুরুল ইসলাম চেয়ারম্যান বাড়ীর সৌদি প্রবাসী,রফিকুল ইসলামের সাথে ১৩ বছর পূর্বে একই গ্রামের সামছুন নাহার সোনিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের ঘরে রেদওয়ানের জন্ম হয়। জন্মের পর থেকে রেদওয়ান ছিল বাক প্রতিবন্ধী। তার জন্মের কিছুদিন পর তার বাব মাদকে আসক্ত হয়ে যাওয়ায় তার বাবাকে তালাক দিয়ে চলে যায় মা সোনিয়া। কিছুদিন তার সোনিয়ার অন্যত্র বিয়ে হয়ে যায়।

রেদওয়ান ৭/৮ বছর রাজধানীর মিরপুরে তার নানার বাসায় ছিলো। ইতোমধ্যে রেদওয়ানের পিতা ঝুমুর নামে এক মহিলাকে বিয়ে করে শহরের পশ্চিম ডাক্তার পাড়ায় বাসা নিয়ে থাকতেন। রফিকের দ্বিতীয় সংসারে ১ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। গত ৬/৭ মাস পূর্বে নানার বাসা থেকে রেদওয়ানকে নিজের বাসায় নিয়ে আসে তার বাবা। বাবার বাসায় আসার পর থেকে সৎ মায়ের নানা নির্যাতনের শিকার হতে থাকে প্রতিবন্ধী শিশু রেদওয়ান।

আজ  তার বাবার বাসায় রেদওয়ানের খালা তাকে দেখতে এসে নির্মম অত্যাচারের চিহ্ন দেখতে পেয়ে ফেনী মডেল থানা পুলিশকে অবহিত করে। এ ঘটনায় ফেনী মডেল থানা পুলিশ সৎ মা ঝুমুরকে আটক করে ও রেদওয়ানকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। আজ  রাতে বিসিসি নিউজের রিপোর্টার ফেনী মডেল থানায় গিয়ে রেদওয়ানের মুখ, গলা, হাত-পা, পেট, পিট, অন্তকোষসহ পুরো শরীরে নানা আঘাতের চিহ্ন দেখতে পান। এ সময় প্রতিবন্ধী শিশুটি ব্যথায় কাতরাচ্ছিল। তার খালা জানায়, রেদওয়ানের সৎ মা তাকে গরম খন্তি দিয়ে ছ্যাকা ও লাঠি দিয়ে আঘাত করে ক্ষত-বিক্ষত করে। তার দাবী রেদওয়ানকে মৃতু্যর উদ্দেশ্যে তার মা এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

এ রির্পোট লিখা পর্যন্ত আহত শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করেনি পুলিশ।

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন