এই মুহূর্তে

মঙ্গলবার | ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ১০ আশ্বিন, ১৪২৫ | ১৪ মহররম, ১৪৪০

প্রচ্ছদ » এই মুহূর্তে » ১৩ ডিসেম্বরের পর সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত: সিইসি

১৩ ডিসেম্বরের পর সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত: সিইসি

১৩ ডিসেম্বরের পর সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত: সিইসি

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে সেনা মোতায়েনের বিষয়ে ১৩ ডিসেম্বরের পর সিদ্ধান্ত হবে।

আজ (বৃহস্পতিবার) জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত বৈঠক শেষে এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিব উদ্দীন আহমেদ। তিনি আশা করছেন, শিগগিরই দেশের পরিস্থিতির উন্নতি হবে এবং শান্তিপূর্ণভাবেই দশম সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে এ বৈঠকে স্বরাষ্ট্রসচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, র‍্যাবের মহাপরিচালক, বিজিবির মহাপরিচালক, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার এবং অন্য বাহিনী ও বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন

কবে থেকে সেনা মোতায়েন করা হবে, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, সেনা মোতায়েনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সঙ্গে কমিশনের বৈঠকে। সাধারণত মনোনয়ন প্রার্থীদের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের পর এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। আগামী ১৩ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময়।

সিইসি বলেন, আপাতত নির্বাচনের মাঠে পুলিশ, র‍্যাব, বিজিবি, আনসার ও কোস্টগার্ড থাকবে। তবে নির্বাচন যেহেতু একদিনে হবে তাই নিয়মিত বাহিনীর পক্ষে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভন নাও হতে পারে। তাই আগে যেমন সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে, এবারও এর ব্যতিক্রম হবে না। সাধারণত ভোটের দিনসহ ৫ দিন পুলিশ, বিজিবি, সেনাসহ আইন শৃঙ্খলবাহিনীর সদস্যরা মোতায়েন থাকে। এবারও যথাসময়ে সেনা মোতায়েন করা হবে।

বিরোধী দল ছাড়া একতরফা নির্বাচনে সেনাবাহিনীকে নামানো হলে বাহিনীটি বিতর্কিত হবে কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, এতে বিতর্কের কিছু নেই। সেনাবাহিনী জানিয়েছে, নির্বাচন কমিশন যেমন চাইবে তারা সব সময় তেমন সহযোগিতা করতে প্রস্তুত। তবে, এখনও রাজনৈতিক দলগুলোর সমঝোতার আশা ছাড়েননি উল্লেখ করে তিনি বলেন, সমঝোতা হলে সব দলের অংশগ্রহণের মধ্য নিয়ে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে।

গত সোমবার আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি। তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৫ জানুয়ারি রোববার ভোট নেয়া হবে। এদিকে, তফসিল ঘোষণার পর রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্ত হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা অব্যাহত আছে। আর তফসিল বাতিলের দাবিতে মঙ্গলবার ভোর ছয়টা থেকে সারা দেশে ৪৮ ঘণ্টার রাজপথ, রেলপথ ও নৌপথ অবরোধ কর্মসূচি শুরু করে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট। পরবর্তীতে তা শুক্রবার ভোর ৫টা পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। অবরোধে সহিংসতায় গত দুই দিনে এ পর্যন্ত ১৭ জন নিহত হয়েছে।

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন