সেরা খবর

সোমবার | ২০ নভেম্বর, ২০১৭ | ৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ | ২৯ সফর, ১৪৩৯

প্রচ্ছদ » সেরা খবর » হরিণাকুণ্ডুতে খাল দখল করে দোকান নির্মাণঃ এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি

হরিণাকুণ্ডুতে খাল দখল করে দোকান নির্মাণঃ এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি

হরিণাকুণ্ডুতে খাল দখল করে দোকান নির্মাণঃ এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি

ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলার শাখারীদহ বাজারের খাল দখল করে দোকান ঘর নির্মাণ করেছে প্রভাবশালীরা। এর ফলে পানি সরবরাহে বাধগ্রস্ত হচ্ছে। এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। শাখারীদহ বাজারের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া খালের তিন ভাগের এক ভাগই দখল করে দোকান নির্মাণ করেছে ওই এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল। যে কারণে খালের জায়গা কমে এসে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে,১৯৭১ সালে শাখারীদহ বাজারে জিকে সেচ প্রকল্পের ডি-নাইন ক্যানেলের জন্য জমি অধিগ্রহণ করা হয়।খাল কাটার পর সেখানে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) একটি ব্রিজ নির্মাণ করে।পানি উন্নয়ন বোর্ড সে সময় খাল খননের জন্য রুপদাহ শাখারীদহ মৌজার ২০৯৭ দাগের ১৮ শতক জমি অধিগ্রহণ করে। সেখানে নির্মিত খালের অধিকাংশই দখল হয়ে গেছে।

বাজারের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দু পাশে অর্ধশতাধিক দোকান নির্মাণ করা হয়েছে। খালের অনেক গভীর থেকে আরসিসি পিলার দিয়ে স্থায়ীভাবে দোকান ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। এতে স্থানীয়দের মাঝে এক ধরনের চাপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যবসায়ী জানান,তিনি মাসে ৩শ টাকা ভাড়া দিয়ে একটি দোকান নিয়েছেন। যে যেভাবে পেরেছে সেভাবে খালটি দখল করে নিয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ কোন খোঁজ খবর নেয় না। যে কারণে আরও বেপরোয়া হয়ে পড়েছে দখলদাররা।

স্থানীয় রাজু হোসেন নামের একজন জানান, আমাদের কাছে সরকারিভাবে বৈধ কোন কাগজপত্র নেই। আমরা বাজার কমিটির অনুমতি নিয়ে দোকান নির্মাণ করেছি। যদি পানি উন্নয়ন বোর্ড কোন পদক্ষেপ নেয় তাহলে তখন দেখা যাবে। এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী অপূর্ব কুমার ভৌমিক বলেন, আমরা একাধিকবার নোটিশ দিয়েছি। তারপরও তারা প্রভাবশালী হওয়ায় বিন্দুমাত্র কর্ণপাত করেনি। খালের দোকানপাট উচ্ছেদে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব।

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন