21 Feb 2018
অমর একুশে

শনিবার | ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ | ১২ ফাল্গুন, ১৪২৪ | ৭ জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯

প্রচ্ছদ » অমর একুশে » বাঙালি বসন্তের রূপ খুঁজে পায় বইয়েতেই

বাঙালি বসন্তের রূপ খুঁজে পায় বইয়েতেই

বাঙালি বসন্তের রূপ খুঁজে পায় বইয়েতেই

১৯৫২-র ২১ ফেব্রুয়ারি বাংলা ভাষার স্বীকৃতির দাবিতে ঢাকায় ছাত্র আন্দোলনের গর্জন। পুলিশের গুলিতে প্রাণ দেন রফিক, বরকত, শফিক, জব্বার, সালাম। সেই রক্ত স্রোতেই জন্ম নেয় বাঙালির স্বাধীনতা সংগ্রাম। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পরেও ভাষার দায় শেষ হয়নি। একুশে ফেব্রুয়ারির প্রেরণায় ভাষাকে বরণ করে নতুন প্রাণে। ১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয় ঢাকার একুশে গ্রন্থ মেলা। মাস জুড়ে চলে। বাঙালি বসন্তের রূপ খুঁজে পায় বইয়েতেই। শুধু বাংলাদেশিরা নয়, বিদেশি লেখক, কবিরাও গন্ধে গন্ধে ছুটে আসেন। ফুল ফুটলে ভ্রমর কী দূরে থাকতে পারে। এবার এসেছিলেন আর্জেন্তিনা, জার্মানি, পুয়ের্তোরিকো, রাশিয়া, চিনের কবি, লেখকরা। মেলার উদ্বোধনের আবেগ দেখে তাঁরা অভিভূত। অবিরাম বৃষ্টির মতো ঝরছে বাংলা বই। বই বন্যায় ভাসছে মানুষ। বইয়ের ঝাঁকা নামতে না নামতেই শেষ। কলকাতার বই মেলার বিক্রি ২০ কোটি। ঢাকার মেলায় প্রথম পনের দিনেই বিক্রি ৪০ কোটি ছাড়িয়েছে। শেষে শত কোটিতে গিয়ে পৌঁছলেও আশ্চর্যের কিছু থাকবে না।

আধুনিক দুনিয়ায় বিনোদনের উপকরণ তো অনেক। সবাই সে দিকেই ছুটছে। সব ফেলে বইকে বুকে তুলে নেওয়ার লোক কোথায়। আছে, বাংলাদেশে আছে। সেখানে বাংলা বইয়ের স্থান বাঙালির হৃদয়ে। তাকে স্থানচ্যুত করার শক্তি কারও নেই। বঙ্গবন্ধু মুজিবুর রহমান যে দিন রাষ্ট্রপুঞ্জে বাংলায় ভাষণ দিয়েছিলেন সে দিনই বিশ্ব আন্দাজ করেছিল বাংলার প্রাণশক্তি। যে ভাষা পৃথিবীর কোমলতম ভাষা। ভালবাসায় বিশ্বকে বাঁধা যার একমাত্র আশা।

 

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন