অন্যান্য

রবিবার | ২৪ জুন, ২০১৮ | ১০ আষাঢ়, ১৪২৫ | ৮ শাওয়াল, ১৪৩৯

প্রচ্ছদ » খবর » অন্যান্য » দিনাজপুরে মহান শহীদ দিবস পালিত

দিনাজপুরে মহান শহীদ দিবস পালিত

দিনাজপুরে মহান শহীদ দিবস পালিত

মহান ২১ ফেব্রুয়ারী ও আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবসে দিনাজপুরে প্রথম প্রহরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম, জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম, পুলিশ সুপার হামিদুল আলমের শ্রদ্ধাজ্ঞলীর মধ্যে দিয়ে দিবসটির সূচনা হয়। আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আজিজুল ইমাম চৌধুরীসহ যুবলীগ, ছাত্রলীগ, মহিলা লীগ, বিএনপির সাবেক সভাপতি লুৎফর রহমান মিন্টুসহ যুবদল, ছাত্রদল, মহিলা দল, জাতীয় পার্টি, জাসদ, ন্যাপসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, পেশাজীবি ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের মানুষ গোর এ শহীদ ময়দানে প্রধান শহীদ মিনারে ভাষা সৈনিকদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞলী জানান। জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন সংগঠন আলোচনা সভা, মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে।

কাহারোলে বিএনপি

দিনাজপুর কাহারোল প্রতিনিধি জানান.দিনাজপুরের কাহারোলে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস/১৮ যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন। উদযাপন উপলক্ষে কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারী রাত ১২ টা ১ মিনিটে উপজেলা পরিষদ চত্বরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্প স্তবক অর্পন করেন। কাহারোল জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম ও কাহারোল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান উপজেল বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ মামুনুর রশীদ চৌধুরী এবং দিনাজপুর-১ আসানের বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ মেহিদী হাসান সুমন এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতা/নেতৃবৃন্দ উপজেলা কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারে পুস্পস্তপক আরপন করেন। এ সময় যুব দল, ছাত্র দল, কৃষক দল, স্বেচ্ছা সেবক দলের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন।

দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়( হাবিপ্রবি) তে মহান শহীদ দিবস উদযাপন করা হয়। সকাল ৮.৪৫ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ   প্রভাতফেরীতে যোগ দেয়। সকাল ৯.০৫ মিনিটে ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সeর্প্রথম শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এর পরে ছাত্রলীগ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। পুষ্পস্তবক অর্পন করার কিছুক্ষন পর পরেই দেখা যায় শহীদ মিনারটি ময়লা আবর্জনার ভাগাড়ে পরিনত হয়। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় বেশ কয়েকজন শিশু পায়ে জুতো পরে বেদীতে থাকা পুষ্পস্তবকের উপর নাচানাচি করছে। এছাড়া বেশ কয়েকটি কুকুরকেও শহীদ মিনারের উপর বসে থাকতে দেখা গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রত্যক্ষদর্শী একছাত্র এই প্রতিবেদক কে জানায়, দেখুন ভাষার মাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের মত একটি জায়গায় যদি এমন কাজ হতে পারে তাহলে বাঙ্গালি জাতি হিসেবে পরিচয় দিতে আমার ঘৃর্না হচ্ছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ছাত্র পরামর্শ ও নিদের্শনা বিভাগের পরিচালক ড.তারিকুল ইসলাম বলেন, আমরা নিরাপত্তা শাখাকে আরো বেশি সজাগ থাকতে নিদের্শ প্রদান করবো।

 

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন