মন্তব্য

শনিবার | ২৩ জুন, ২০১৮ | ৯ আষাঢ়, ১৪২৫ | ৮ শাওয়াল, ১৪৩৯

প্রচ্ছদ » মতামত » মন্তব্য » পুরুষদের ডান দিকে আর মহিলাদের বাঁ দিকে শার্টের বোতাম থাকে কেন?

পুরুষদের ডান দিকে আর মহিলাদের বাঁ দিকে শার্টের বোতাম থাকে কেন?

পুরুষদের ডান দিকে আর মহিলাদের বাঁ দিকে শার্টের বোতাম থাকে কেন?

শার্ট পরার সময় কখনও ভেবেছেন আপনার আর আপনার স্বামীর শার্টের বোতাম উল্টোদিকে থাকে কেন? পুরুষদের ডান দিকে এবং মহিলাদের বাঁ দিকে। বোধহয় কখনও লক্ষ্যই করেননি। এই ব্যস্ত জীবনে এই ছোট বিষয়টা লক্ষ্য করার উপায়ও নেই। কিন্তু কেন এমন ‘বৈষম্য’? এটা নিয়ে অনেক মতামত রয়েছে।

ইতিহাসবিদদের মতে, বোতামের চল শুরু হয় সিন্ধু সভ্যতায়। ঝিনুকের খোল দিয়ে বোতাম বানানো হত তখন। ১৩ শতকে জার্মানিতে ছিদ্রযুক্ত বোতামের ব্যবহার শুরু হয়।

সেই সময়ে সাধারণত ধনীদেরই শার্টে বোতাম থাকত। পুরুষরা নিজেরাই শার্ট পরতেন। কিন্তু ধনী মহিলাদের শার্ট পরাবার জন্য আলাদা করে দাসী নিযুক্ত করা হত। দাসীদের জামা পরানোর সুবিধার্থেই মহিলাদের শার্টের বোতাম বাঁ দিকে লাগানো শুরু হয় বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের একাংশের। আর যেহেতু পুরুষরা নিজেরাই জামা পরতেন তাই শার্টের বোতাম ডান দিকে লাগানো থাকত।

এমনও বলা হয়, বেশিরভাগ মানুষই ডানহাতি। অর্থাৎ ডান হাতেই বেশি এবং কঠিন কাজ করতে অভ্যস্ত। পুরুষরা যেহেতু ডান হাতে তলোয়ার রাখতেন, তাই বাঁ হাতে তাঁদের পোশাক খুলতে সুবিধা হত। আর শিশুদের স্তন্যপান করানোর সময় ডান হাত বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মুক্ত রাখেন মহিলারা। তাই বাঁ দিকে বোতাম থাকলে মহিলাদের সুবিধা হয়।

ডান হাতের থেকে বাঁ হাত হল অধস্তন— এমন ধারণা প্রচলিত রয়েছে বহু কাল ধরেই। আর সে কারণেই নাকি মহিলাদের শার্টের বোতাম বাঁ দিকে রাখা হয়। অর্থাৎ মহিলারা, পুরুষদের অধীন বা মহিলাদের স্থান সর্বদাই পুরুষদের নীচে, তা বোঝানোর জন্যই এই ব্যবস্থা।

আবার কারও মতে, নেপোলিয়ন বোনাপার্টের নির্দেশেই এমন ব্যবস্থার শুরু। কেন? নেপোলিয়ন তাঁর একটি হাত সব সময় শার্টের মধ্যে ঢুকিয়ে রাখতেন। আর মহিলারা তাঁকে নকল করে ব্যঙ্গ করতেন। সে সব বন্ধ করার জন্য নেপোলিয়ন নির্দেশ দেন মহিলাদের শার্টের বোতাম উল্টোদিকে অর্থাৎ বাঁ দিকে লাগানোর জন্য।

 

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন