আইন ও আদালত

শনিবার | ২৩ জুন, ২০১৮ | ৯ আষাঢ়, ১৪২৫ | ৮ শাওয়াল, ১৪৩৯

প্রচ্ছদ » খবর » আইন ও আদালত » নাটোরে প্রবাসীর বাড়ি থেকে চার জঙ্গী আটক, জিহাদী বই উদ্ধার

নাটোরে প্রবাসীর বাড়ি থেকে চার জঙ্গী আটক, জিহাদী বই উদ্ধার

নাটোরে প্রবাসীর বাড়ি থেকে চার জঙ্গী আটক, জিহাদী বই উদ্ধার

নাটোরের দিঘাপতিয়া এলাকায় এক দুবাই প্রবাসীর বাড়ি থেকে চার জঙ্গীকে আটক করেছে পুলিশ। বাড়িটি ঘিরে রাখার তিন ঘন্টার পর অভিযান শেষে তাদেরকে আটক করা হয়। এসময় ৫টি ককটেল, জিহাদী বই, সালফার সহ বেশ কিছু সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। আর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ির মালিকের ভাই রফিক সিকদার কে ডিবি পুলিশের হোফজতে নেয়া হয়েছে। আটককৃতরা হচ্ছে, সিংড়া উপজেলার আরকান্দি পশ্চিমপাড়া গ্রামের ইউনুস আলী মিয়ার ছেলে আনিসুর রহমান ওরফে আনিস (৪০), বাগাতিপাড়া উপজেলার চাপাপুকুর গ্রামের মৃত শুকুর আলীর ছেলে শফিকুল ইসলাম (৪২), একই এলাকার মৃত ভিকু মন্ডলের ছেলে ফজলুর রহমান ওরফে ফজলু (৩৮) এবং নলডাঙ্গা উপজেলার খোলাবাড়িয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের ফোজলার রহমান এর ছেলে জাকির হোসেন ওরফে জাকির মাস্টার (৩৮)।

নাটোরের পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার বলেন, বেশ কিছু জঙ্গী একটি বাড়িতে অবস্থান নিয়ে গোপন বৈঠক করছে এমন সংবাদে দিঘাপতিয়া এলাকার দুবাই প্রবাসি ইকবাল সিকদারের বাড়িটি গতরাত ৩টার দিকে ঘিরে রাখে পুলিশ। এসময় জঙ্গীদের অবস্থান নিশ্চিত হওয়ার পর পুলিশ তাদের আত্মসমর্পনের জন্য বারবার আহবান জানান। কিন্তু পুলিশের আহবানে কোন ভাবেই সাড়া দিচ্ছিলনা। পরে ফজর নামাজ পর এক জঙ্গী সদস্য পুলিশের আহবানে সাড়া দিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে আসে। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আরো তিনজনকে আটক করা হয়। এসময় বাড়িটির তিনটি কক্ষে তল্লাশি চালিয়ে ৫টি ককটেল, চারটি চা পাতি, বেশ কিছু জিহাদী বই, কিছু পরিমানের সালফার, একটি ল্যাপটপ, চারটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

পুলিশ সুপার আরো জানান, বাগিটি দুবাই প্রবাসি ইকবাল সিকদারের হলেও তার ভাই রফিক সিকদার দেখাশুনা করতেন। মাস খানেক আগে রফিক সিকদারের কাছ থেকে বাড়িটি ভাড়া নেয় দিঘাপতিয়া এমকে কলেজের শিক্ষার্থী আমির হামজা। এরপর থেকেই বাড়িটিতে দু-একজন মানুষের যাতায়াত ছিল। বেশির ভাগ সময় বাড়িটির গেট বন্ধ থাকতো। তবে আমির হামজাকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

পুলিশ সুপার আরো জানান, দেশের বিভিন্ন জেলার জঙ্গী আস্তানার যে রকম বাড়ি, এখানেও সে বাড়িটি একই রকমের। পুরো বাড়িটি ভুতরের মতো অবস্থা। বাড়িটির তিনটি কক্ষ থাকলেও একটি কক্ষে মাত্র লাইট ছিল। আর সেখানে জঙ্গীরা অবস্থান নিয়েছে। তবে নাটোরে তাদের নাশকতার কোন পরিকল্পনা ছিল কিনা সে বিষয়ে বিস্তারিত জঙ্গীদের সাথে কথা বলে জানা যাবে। তবে আটককৃতদের নামে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

অভিযানে পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদারের নেতৃত্বে মুল অভিযান পরিচালনা করেন, গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল হাই। এসময় নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খায়রুল ইসলাম, হেডকোয়াটার ফায়জুল ইসলাম, নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মশিউর রহমান সহ ডিবি পুলিশের একটি বিশেষ দল এই অভিযানে অংশ গ্রহন করে।

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন