সেরা খবর

মঙ্গলবার | ১৯ জুন, ২০১৮ | ৫ আষাঢ়, ১৪২৫ | ৪ শাওয়াল, ১৪৩৯

প্রচ্ছদ » সেরা খবর » রাজধানীর ১৬টি খাল সংস্কারে বরাদ্দ ৫৫০ কোটি টাকা

রাজধানীর ১৬টি খাল সংস্কারে বরাদ্দ ৫৫০ কোটি টাকা

রাজধানীর ১৬টি খাল সংস্কারে বরাদ্দ ৫৫০ কোটি টাকা

রাজধানীর পানি নিষ্কাশণের জন্য প্রায় বেদখল ১৬টি খাল সংস্কার করে দুই পার বাঁধাই করা ও হাঁটার রাস্তা নির্মাণের জন্য একটি প্রকল্প অনুমোদন হয়েছে। এই কাজে ব্যয় হবে মোট ৫৫০ কোটি টাকা।

আগামী দুই বছরের মধ্যেই এই প্রকল্পটির কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন প্রকল্প অনুমোদনকারী স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

আজ (সোমবার) এই প্রকল্পটি অনুমোদন দেয়া হয়। পরে নিজ দপ্তরে গণমাধ্যম কর্মীদের এ বিষয়ে জানান এলজিআরডি মন্ত্রী।

মন্ত্রী আরো বলেন,ঢাকার আশেপাশে ৫৫০ কোটি টাকা খরচে ১৬টি খাল সংস্কারের একটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তবে, টাকাটা সরকারের হাতে নেই। প্ল্যানের বাইরে কোন কিছু করতে গেলেই অর্থমন্ত্রীর কাছ থেকে টাকা নিতে হয়। টাকার বরাদ্দ নিতে দেরি হয়। ফলে কাজেও দেরি হয়। এ টাকাটা দুই মাস আগে পেলে কাজ আরও এগিয়ে যেত। জলাবদ্ধতাও অনেকাংশে কমে যেত।

ঢাকা ওয়াসার হিসাবেই ১৯৭১ সাল পর্যন্ত ৫৪টি খালের অস্তিত্ব ছিল। ১৯৮১ সালে এর সংখ্যা ৪৭টিতে নেমে আসে। বর্তমানে ঢাকায় ২৬টি খালের অস্তিত্ব পাওয়া গেলেও বেশির ভাগই অস্তিত্ব সংকটে। সিংহভাগ খাল দখল করে বাড়িঘর ও বহুতল ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।

যেসব এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে এবং পানি যেতে প্রতিবন্ধকতা তৈরি হচ্ছে সেসব এলাকায় আমরা এডহক বেসিসে মুভ করছি এবং পার্মানেন্ট ব্যাসিসে করার জন্য এই ৫৫০ কোটি টাকা প্রকল্প আমরা অনুমোদন দিয়েছি।’

আমরা যে কাজ হাতে নিচ্ছি তা স্থানীয় জনগণকে সম্পৃক্ত করে করা হবে। প্রতিটি এলাকায় কমিটি করে এ কাজগুলো করা হবে। যাতে রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বেও তারা থাকেন।’

খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি ঢাকায় তিন ঘণ্টার বেশি জলাবদ্ধতা থাকবে না এবং থাকছেও না। দুই একটি ব্যাড স্পট ছাড়া দুই ঘণ্টা থেকে আড়াই ঘণ্টার মধ্যে পানি সরে যাচ্ছে।’

তবে জলাবদ্ধতার সমস্যার দ্রুত কোনো সমাধান নেই বলেও জানান মন্ত্রী। বলেন, ‘যে জলাবদ্ধতা একশ বছর আগে শুরু হয়েছে সেটা তো হঠাৎ করেই শেষ করা যাবে না। এক্ষেত্রে ডিটেইল প্লান করে এর সমাধানের চেষ্টা করতে হবে। এর অংশ হিসেবেই আমরা ১৬টি খাল নিয়ে কাজ শুরু করছি।’

 

 

বিসিসি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মন্তব্য করুন